1. admin@rangpurjournal.com : admin :
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৩:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক পেলেন লালমনিরহাট জেলার পুলিশ সুপার রংপুর প্রেসক্লাব আয়োজিত মিডিয়া কাপের চ্যাম্পিয়ন টিসিএ – রংপুর জার্নাল স্টেপ আপ ফর টুমরো সংগঠনের উদ্যোগে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন পিজিয়ন ক্লাবের উদ্যোগে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন ফেন্সিডিলসহ ছাত্রলীগ নেতা আটক – রংপুর জার্নাল হাতীবান্ধায় হেফজ বিভাগের ছাত্রদের মধ্যে টেবিল বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত স্থলবন্দর শ্রমিক লীগের অস্থায়ী কার্যালয়ের উদ্বোধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত – রংপুর জার্নাল ফাগুন – শফিউজ্জামান আতা রংপুরে চালু হলো সিটি বাস সার্ভিস পাবনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ১৮০ পিচ ইয়াবা সহ গ্রেফতার ২

হাতীবান্ধার মাদক সম্রাট ছালাম মাদকবিক্রি করে এখন কোটি কোটি টাকার মালিক

  • আপডেট সময় : শনিবার, ২১ মে, ২০২২
  • ১৮৭ বার পঠিত

হাতীবান্ধার মাদক সম্রাট ছালাম মাদকবিক্রি করে এখন কোটি কোটি টাকার মালিক

 

রকিবুল হাসান রিপন

লালমনিরহাট প্রতিনিধি :

 

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার গোতামারী ইউনিয়ন পরিনত হয়েছে মাদকের আখড়ায়।

স্থানীয় থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা, ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ বিভিন্ন মাদক দ্রব্য বিক্রি করে আসছে ওই এলাকার মাদক সম্রাট আব্দুস সালাম ও তার সহযোগীরা ।

মাদক বিক্রেতা আঃ সালাম ওই ইউনিয়নের দইখাওয়া গ্রামের টেকনিক্যাল কলেজ এলাকার আকবার আলীর ছেলে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, সালাম গত দুই বছর আগেও ছিলো একজন দিনমজুর। মাদক বিক্রি করে এখন সে কয়েক কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন, এলাকায় নামে বেনামে কিনেছেন একরের পর একর জমি। মাদক পরিবহনের জন্য কিনেছেন দশটির ও অধিক মোটরসাইকেল। আছে প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস।

জানা যায় জেলা কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডারে কোটি টাকা খরচ করে তৈরি করেছেন একটি আলিশান বাড়ী।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানান, ছালাম মাদকের বিরাট এক ডিলার। তার বাড়ীতে প্রতিদিন দূর দুরান্ত থেকে প্রায় ১৫০ থেকে ২০০টি মোটর সাইকেলে করে লোকজন আসে মাদক ক্রয় ও সেবনের উদ্দ্যেশে।

হাতীবান্ধা থানা পুলিশ, স্থানীয় চেয়ারম্যান, প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা, এমনকি কতিপয় সাংবাদিকও নিয়মিত মাসোয়ারা নেয় এ মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে দাবী স্থানীয়দের।

 

তারা আরও জানান, মাদককারবারী আঃ ছালাম দুই বছর আগে একবার মাদক বিক্রির অপরাধে গ্রেফতার হয়েছিলেন। জেল থেকে ফিরে এসে আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে সে। বর্তমানে

তার কারনে হাতের লাগালে মাদক পেয়ে স্থানীয় অনেক কিশোরসহ বিভিন্ন বয়সের ছেলেরাও জড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে এ মরন নেশায়।

 

স্থানীয়দের দাবী দ্রুত এই মাদক সম্রাট আঃ ছালামকে আটক করে আইনের আওতায় আনা না গেলে মাদকের ভয়াল ছোবল থেকে রক্ষা পাবে না গোতামারী ইউনিয়ন সহ পুরো হাতীবান্ধা উপজেলা।

 

মাদক ব্যবসায়ী সালাম মুঠোফোনে জানান, এলাকার কিছু ব্যক্তি শত্রুতাবসত আমার নামে এসব ছড়াচ্ছে। আমি মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নই। আপনি আমার এলাকায় আসেন সরাসরি কথা বলবো।

 

এ বিষয়ে গোতামারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোনাব্বেরুল হক মোনা বলেন, আঃ সালাম একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। তাকে ধরার জন্য হাতীবান্ধা থানার ওসিকে আমি রিকুয়েস্ট করেছি। মাসোয়ারার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করে বলেন, মাঝে মধ্যে গ্রাম পুলিশ দিয়ে এলাকায় টহল জোরদার করিয়েছি যেন বাইরের মোটরসাইকেল আরোহীরা মাদক সেবন করতে না আসতে পারে। তাই মাদককারবারীরা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

 

হাতীবান্ধা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এরশাদুল আলম মাসোহারার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমার থানার কেউ টাকা নেয় না। যদি থানার পুলিশের নাম করে কেউ একাজ করে, অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। মাদক ব্যবসায়ী সালামের বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

লালমনিরহাট প্রতিনিধির কাছে সংরক্ষিত আছে : এলাবাসির বক্তব্য, সালামের বাড়ি থেকে মাদক বিক্রির ভিডিও, ইউপি চেয়ারম্যান এর ভিডিও বক্তব্য ও ওসির বক্তব্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Rangpur Journal
Theme Customized By Theme Park BD